Login

Hijama

হিজামাঃ

কাপিং (Cupping) খুব সহজ কথায় একটা প্রসিডিউর বা থেরাপি। কাপিং এর অনেক ধরণ রয়েছে। ড্রাই কাপিং, ওয়েট কাপিং, মেডিসিনাল কাপিং, মুভিং কাপিং, সিলিকন কাপিং এরকম আরও নানা ধরন, নানা নামে কাপিং বিভিন্ন দেশে ব্যবহৃত হয়।
কাপিং এর প্রথম ধাপটি সব ধরনের কাপিং এর বেলাতেই একদম এক। যেখানে বিশেষ ধরণের কাপ সদৃশ ইন্সট্রুমেন্ট ব্যবহার করে ত্বকের উপর প্রথমে নেগেটিভ সাকশান দেয়া হয়।

এরপরের ধাপগুলোর ধরন ও সংখ্যা কোন টাইপের কাপিং হচ্ছে- সে অনুযায়ী আলাদা আলাদা হয়ে থাকে।
♦ চাইনিজ ট্রেডিশনাল কাপিং এর যত প্রসিডিউর তার বেশিরভাগ গুলোই single ‘S’ procedure। সব ই ড্রাই কাপিং এর নামান্তর। শুধু suction দেয়া হয় এগুলোতে। স্কিন থেকে ব্লাড বের করার কোন ধাপ এক্ষেত্রে থাকেনা।

♦ হিজামা হচ্ছে কাপিং এর আরেকটা ধরন। ইংরেজিতে যাকে বলা হয় Wet cupping Therapy। কাপিং থেরাপিগুলোর মধ্যে হিজামাই সবচেয়ে বেশি সায়েন্টিফিক এবং ফলপ্রসূ। শুধুমাত্র হিজামাটাই রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সুন্নাহ।

♦ প্রফেটিক মেডিসিন এর গবেষণা অনুযায়ী হিজামা একটি 3 ‘S’ procedure (suction, scarification, suction)। সায়েন্টিফিকভাবে বললে হিজামা একটি “skin based excretory procedure”! কিডনীর excretory procedure এর চেয়ে স্কিন এবং এর রক্তনালীর বিশেষত্বের জন্যে হিজামার Detoxification এর রেঞ্জ অনেক বড়। হিজামার অসংখ্য অনবদ্য Mechanism of action আছে, মিরাকেল আছে।

♦ স্পেসিফিক ঠিক কোন হাদিসের আলোকে এই ‘তিন ধাপ’ এর ব্যাপারটা আসল সেটা আমরা খুঁজে পাইনি। তবে ভাল লাগে যখন দেখি, এই 3 ‘S’ procedure টি বিজ্ঞানের ব্যাখ্যার সাথে খুব মিলে যায়!

♦ বাংলা অনুবাদে হিজামা কে ‘শিঙা’ হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে সবসময়। শিঙাকে প্রক্রিয়াগত কিছুটা মিলের কারনে কাপিং এর একটা লোকাল ভার্সন হয়তো বলা যায়। কিন্তু সেটা আসলেই হিজামার ৩ টি ধাপ ফলো করে কীনা সেটা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়। তাই সেটাকে সুন্নাহ বলা যাবে কীনা সে ব্যাপারে তর্কের যথেষ্ট অবকাশ ও চলে আসে। সারা বিশ্বে বর্তমানে প্রচলিত তিন ধাপের হিজামা প্রক্রিয়াটি কে প্রফেটিক মেডিসিন এর সাথে জড়িত বিজ্ঞজনেরা এপ্রুভড করছেন। এবং আমরাও তাই এক্সাক্টলি সেটাই ফলো করছি। সুন্নাহ হিসেবে সারা বিশ্বে স্কলারদের মধ্যে প্রচলিত এই প্রসিডিউরটি নিয়েও মতের কোন পার্থক্য হতে দেখিনা আমরা। তাই আমাদের মতে হিজামা কে ‘শিঙা’ ভাবাটা বিভ্রান্তিকর। তাই হিজামাকে ‘শিঙা’ হিসেবে বাংলায় অনুবাদ করার চেয়ে ‘হিজামা’ নামে উল্লেখ করাটাই নিরাপদ। তাহলে হিজামার স্বাতন্ত্র্য ও মর্যাদা দুটোই রক্ষা হয়।

তাহলে এক কথায় দাঁড়াচ্ছে-
“হিজামা এক ধরনের কাপিং, কিন্তু সব কাপিং ই হিজামা নয়!”

আরো সহজ ভাবে বলতে গেলে:
হিজামা হচ্ছে একটা চিকিৎসা ব্যবস্থা। আমাদের প্রচলিত এলোপ্যথি কিংবা হোমিওপ্যাথির মত এটা না। এটা একটু অন্যধরণের চিকিৎসা ব্যবস্থা। এটি একটি ছোট আকারের সার্জিকাল চিকিৎসা। এখানে নেগেটিভ সাকশানের মাধ্যমে শরীর থেকে রোগ তৈরী করে এমন সব জিনিস এবং রোগের কারণে তৈরী হওয়া জিনিসগুলো শুষে বের করে আনা হয়।

এই চিকিৎসা ব্যবস্থা বহু প্রাচীন। আগে বাঁশ কিংবা প্রাণীর শিং ব্যবহার করে এই চিকিৎসা করা হত, কিন্তু বর্তমানে সাধারণত গ্লাস কিংবা প্লাস্টিকের কাপ ব্যবহার করে এটা করা হয়।
হিজামা (Cupping) এর মাধ্যমে যে সব রোগের চিকিৎসা করা হয়ে থাকেঃ
১। মাইগ্রেন জনিত দীর্ঘমেয়াদী মাথাব্যথা
২। রক্তদূষণ
৩। উচ্চরক্তচাপ
৪। ঘুমের ব্যাঘাত (insomnia)
৫। স্মৃতিভ্রষ্টতা
৬। অস্থি সন্ধির ব্যাথা/ গেটে বাত
৭। পিঠের ব্যাথা
৮। হাঁটু ব্যাথা
৯। দীর্ঘমেয়াদী সাধারন মাথা ব্যাথা
১০। ঘাড়ে ব্যাথা
১১। কোমর ব্যাথা
১২। পায়ে ব্যাথা
১৩। মাংসপেশীর ব্যাথা (muscle strain), মাসল পুল
১৪। দীর্ঘমেয়াদী পেট ব্যথা
১৫। হাড়ের স্থানচ্যুতি জনিত ব্যাথা, ফ্র্যাকচার পেইন
১৬। থাইরয়েড গ্রন্থির সমস্যা
১৭। সাইনুসাইটিস
১৮। হাঁপানি (asthma)
১৯। হৃদরোগ (Cardiac Disease)
২০। রক্তসংবহন তন্ত্রের সংক্রমন
২১। টনসিলাইটিস, ফ্যারিঞ্জাইটিস, ব্রংকাইটিস
২২। দাঁত/মুখের/জিহ্বার সংক্রমন
২৩। গ্যাস্ট্রিক পেইন, গ্যাস্ট্রিক আলসার, এসিডিটি, esophageal varices
২৪। মুটিয়ে যাওয়া (obesity)
২৫। দীর্ঘমেয়াদী চর্মরোগ (Chronic Skin Diseases)
২৬। ত্বকের নিম্নস্থিত বর্জ্য নিষ্কাশন
২৭। ফোঁড়া-পাঁচড়া সহ আরো অনেক রোগ,
২৮। ডায়াবেটিস (Diabetes) ও ডায়াবেটিক ফুট,
২৯। ভার্টিব্রাল ডিস্ক প্রোল্যাপ্স/ হারনিয়েশান,
৩০। চুল পড়া (Hair fall),
৩১। মানসিক সমস্যা (Psychological disorder),
৩২। পারকিনসন্স ডিজিজ
৩৩। কিডনির সমস্যা
৩৪। স্পোর্টস ইঞ্জুরি (খেলোয়াড়, আর্মি, কনট্যাক্ট স্পোর্টস)
৩৫। কানের সমস্যা
৩৬। ক্যান্সারের ব্যাথা নিয়ন্ত্রন,
৩৭। লিভার ডিজিজ, পোর্টাল হাইপারটেনশান,
৩৮। হরমোনাল সমস্যা,
৩৯। ব্রেইন ডিজিজ ও ডিজঅর্ডার,
৪০। ক্রনিক কফ
৪১। Erectile Dysfunction (ED)
৪২। মুখের ব্রন,
৪৩। সিস্টেমিক লুপাস ইরাইথেমেটোসাস (SLE),
৪৪। অনিয়মিত মাসিক, মেয়েদের অন্যান্য সমস্যা,
৪৫। এডিকশান/ ডিপেন্ডেন্সি (স্লিপিং পিল, ড্রাগস, কফ সিরাপ, জর্দা, সিগারেট, এলকোহল ও অন্যান্য নেশাদ্রব্য)
৪৬। TMJ Dysfunction Syndrome
৪৭। প্যারালাইসিস (স্ট্রোক, মেরুদন্ডে আঘাত, গিয়েন বারে সিন্ড্রোম, ফেসিয়াল প্যারালাইসিস বা বেল’স পলসি প্রভৃতি)
৪৮। অস্টিওপোরোসিস (হাড়ের ক্ষয়)
৪৯। Post menopsusal hot flush
৫০। Vaginismus
৫১। vertigo (মাথা ঘোরা) ইত্যাদি

0 responses on "Hijama"

Leave a Message

Your email address will not be published.

© 2020 Powered By Madina Hijama. All Rights Reserved. Design & Develop By ~ Soft IT Care